কখন সর্বনাশ হয়ে গেছে আমরা টেরও পাইনি: ফারুকী

মোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত সিনেমা ‘শনিবার বিকেল’ নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে প্রায় তিন বছর আগে। বেশ কিছু আন্তর্জাতিক পুরস্কারও লাভ করেছে এটি। কিন্তু এখনো বাংলাদেশ সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র মেলেনি। এ নিয়ে আপিল করেছেন ফারুকী; তবু উত্তর মেলেনি।

দীর্ঘ দিন পর বিষয়টি নিয়ে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন ফারুকী। লেখার শুরুতে এই নির্মাতা বলেন—‘‘আজকে সকাল সকাল মনটা খারাপ হয়ে গেল! এরকম কত সকাল যে আমার গেছে। আমি একটা সিনেমা বানাইছি ‘শনিবার বিকেল’ নামে।

যেটা সেন্সর বোর্ড সদস্যরা দেখে বিভিন্ন পত্রিকায় ইন্টারভিউ দিয়ে বললেন, আমরা দ্রুতই সেন্সর সার্টিফিকেট দিয়ে দিচ্ছি। তারপর এক অদৃশ্য ইশারায় সিনেমাটির দ্বিতীয় শো করে তারা। তারপর বলে দিলো, সিনেমা ব্যান।

আমরা আপিল করলাম। আজকে সাড়ে তিন বছর হলো আপিলের। কোনো উত্তর নাই এবং আমাদেরও বুঝি কিছু বলার নাই। কারণ তারাপদ রায়ের কবিতার মতো আমাদের কখন সর্বনাশ হয়ে গেছে আমরা টেরও পাইনি।’’

ফারুকী নির্মিত আলোচিত নাটক ‘৪২০’। রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে গড়ে উঠেছে নাটকটির কাহিনি। এছাড়াও তার বেশ কিছু রাজনৈতিক কাজ রয়েছে। বিষয়টি স্মরণ করে ফারুকী বলেন—‘আজকে ইস্টার্নকিকের রিভিউটা হঠাৎ সাজেস্ট করলো আমাকে অ্যালগোরিদম। এটা আমি আগে পড়ি নাই। পড়ে মনে হইলো আমরা ফুল, পাখি, লতা, পাতা নিয়া সিনেমা বানাইলে ‘ঠিক আছে’! এমন কিছু বানানো যাবে না যেখানে আমাদের চেহারা দেখা যায়। কিন্তু আমি তো চিরকাল সেইসব গল্পই বলে আসছি যেখানে আমাদের চেহারা দেখা যায়, সেটা প্রেমের গল্পই হোক আর রাজনীতির গল্পই হোক। আমি তো অন্য কিছু পারি না। তাহলে পাখি সব যে রব করবে, সেটা কি নতুন সুরে করতে হবে? নতুন সুর শিখতে হবে?’

‘শনিবার বিকেল’ সিনেমার কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন—জাহিদ হাসান, নুসরাত ইমরোজ তিশা, মামুনুর রশীদ, ইরেশ যাকের, ইন্তেখাব দিনার, গাউসুল আলম শাওন, নাদের চৌধুরী, ভারতের পরমব্রত চ্যাটার্জি, প্যালেস্টাইনের ইয়াদ হুরানি প্রমুখ।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*