ব্রিকসে নয় পাকিস্তান, শীর্ষবৈঠকে চিনা প্রেসিডেন্ট চিনফিংকে বার্তা প্রধানমন্ত্রী মোদীর

বিশ্বের গড় অভ্যন্তরীণ উৎপাদনের ২৫ শতাংশেরও বেশি ব্রিকস রাষ্ট্রগুলির (ভারত, রাশিয়া, চিন, ব্রাজিল, দক্ষিণ আফ্রিকা) সম্মিলিত জিডিপি।

সম্প্রসারণে আপত্তি নেই। কিন্তু আপত্তি পাকিস্তানকে নিয়ে। গত ২৪ জুন ব্রিকস গোষ্ঠীভুক্ত দেশগুলির (ভারত, রাশিয়া, চিন, ব্রাজিল, দক্ষিণ আফ্রিকা)

শীর্ষ পর্যায়ের ভার্চুয়াল বৈঠকের আগে চিনা প্রেসিডেন্ট শি চিনফিংকে সে কথা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়ে দিয়েছিলেন বলে বিদেশ মন্ত্রকের একটি সূত্রের খবর।

ব্রিকস গোষ্ঠীভুক্ত দেশগুলির পাশাপাশি ওই বৈঠকে ‘পর্যবেক্ষক’ হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইরান, মিশর, ফিজি, আলজেরিয়া, কম্বোডিয়া, থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া এবং মালয়েশিয়া রাষ্ট্রনেতারা। কিন্তু বেজিং সক্রিয় হলেও শেষ পর্যন্ত নয়াদিল্লির আপত্তিতেই পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ পর্যবেক্ষক হতে পারেননি বলে ওই সূত্রের খবর।

বিশ্বের গড় অভ্যন্তরীণ উৎপাদনের ২৫ শতাংশেরও বেশি এই গোষ্ঠীভুক্ত রাষ্ট্রগুলির সম্মিলিত জিডিপি। ‘ব্রিকস নিউ ডেভেলপমেন্ট ব্যাঙ্ক’ (এনডিবি)-কে আরও প্রসারিত করার বিষয়টি নিয়ে এ বারের শীর্ষবৈঠকে আলোচনা হয়েছে। তবে এর জন্য প্রয়োজন ব্রিকস কাঠামোকে ঢেলে সাজানো, যাতে উন্নয়নশীল দেশগুলির কাছে ব্রিকস একটি দিশা দেখাতে পারে। সে ক্ষেত্রে ব্রিকসের সম্প্রসারণকে অগ্রাধিকার দেওয়ার বিষয়টিও এসেছে মোদী, চিনফিংদের আলোচনায়। কিন্তু এ ক্ষেত্রে কোনও অবস্থাতেই পাকিস্তানের নাম আলোচনায় আনতে চাইছে না ভারত।

সুত্রঃ Anandabazar Patrika

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*