পেটে প্রবল যন্ত্রণা, শৌচাগারে যেতেই সন্তানের জন্ম দিলেন ছাত্রী!

রাতে বাড়িতে একটি পার্টি ছিল। পেটে প্রবল যন্ত্রণা হাওয়ায় তিনি ভেবেছিলেন ঋতু-সমস্যার কারণে হচ্ছে। স্নান করে ধাতস্থ হওয়ার জন্য শৌচাগারে যান।

বাড়ির শৌচাগারে পুত্র সন্তানের জন্ম দিলেন এক তরুণী। ব্রিটেনের এক বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই ছাত্রী ঘুণাক্ষরেও বুঝতে পারেননি যে তিনি সন্তানের জন্ম দিতে চলেছেন।

পেটে প্রবল যন্ত্রণা হাওয়ায় তিনি ভেবেছিলেন ঋতু-সমস্যার কারণেই তা হচ্ছে। রাতে বাড়িতে একটি পার্টি ছিল। তাঁর আগে পেটে প্রচণ্ড যন্ত্রণা হওয়ায় তিনি শৌচাগারে যান। সেখানেই জন্ম হয় তাঁর সন্তানের।

ইতিহাস এবং রাষ্ট্রবিজ্ঞানের ছাত্রী জেস ডেভিস সবে কুড়িতে পা দিয়েছেন। তাঁর জন্মদিন উপলক্ষে আগের দিন রাতে বাড়িতে একটি পার্টির আয়োজন করা হয়েছিল। ডেভিসের দাবি, মাতৃত্বের আগমন হলে যে ধরনের লক্ষণ দেখা যায় সে রকম কিছুই তাঁর ছিল না। এমনকি স্ফীত পেটও ছিল না তাঁর। শুধু মাঝেমাঝে পেটে ব্যথা হতো। ভেবেছিলেন তা ঋতুজনিত সমস্যার কারণে তা হচ্ছে। কারণ তাঁর ঋতু-চক্র বরাবরই অনিয়মিত ছিল ।

জন্মদিনের অনুষ্ঠান শুরুর আগে হঠাৎ পেটে প্রবল যন্ত্রণা শুরু হয়। ডেভিস ভেবেছিলেন ঋতু-চক্র শুরু হবে, তাই পেটে যন্ত্রণা হচ্ছে। শৌচাগারে গিয়েছিলেন গায়ে জল ঢেলে একটু ধাতস্থ হওয়ার জন্য। বাথরুমে বসতেই সন্তানের জন্ম হয়।

তবে সন্তানের জন্ম দিয়ে বেশ খুশি ডেভিস। বাথরুমে যখন তিনি কান্নার শব্দ শুনেছিলেন, তিনি বিস্ময়ে হতবাক হয়ে গিয়েছিলেন। বিস্ময়ের ঘোর কাটতেই তাঁর চোখ দিয়ে নেমে এসেছিল আনন্দাশ্র। ডেভিসের কথায়, ‘‘প্রাথমিক ধাক্কা কাটিয়ে উঠতে বেশ খানিকটা সময় লেগে গিয়েছিল। ’’

বাড়িতে আসা এক বন্ধুই সন্তান-সহ ডেভিসকে হাসপাতালে ভর্তি করেন। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, নির্দিষ্ট সময়ের আগেই সন্তানের জন্ম হয়েছে। তবে বর্তমানে মা এবং সন্তান দু’জনেই সুস্থ আছেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*