খেলতে খেলতে হঠাৎ ৬-৭ সেন্টিমিটার লম্বা পেরেক গিলে ফেলেছিল দুই বছরের শিশু

খেলতে খেলতে হঠাৎ আস্ত এক পেরেক গিলে ফেলেছিল দুই বছরের এক শিশু। এরপরই শুরু হয় শ্বাসকষ্ট ও বমি। বাবা-মা শিশুটিকে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক পরীক্ষা করে বুঝতে পারেন যে তার বুকে পেরেকটি আটকে আছে।

রোববার (২৭ জুন) দুই ঘণ্টা অস্ত্রোপচারের পর বাচ্চাটির শ্বাসনালী থেকে পেরেকটিকে বার করা হয়।

হাসপাতাল থেকে পাওয়া তথ্যে জানা যায়, মুস্তাকিম আলি নামে ওই বাচ্চাটির বাড়ি পশ্চিমবঙ্গে উত্তর দিনাজপুরের হাতগাছি এলাকায়। তার শ্বাসনালীর ডান দিকের দেওয়ালে একটি ৬-৭ সেন্টিমিটার লম্বা পেরেক গেঁথেছিল। অস্ত্রোপচারের পর এখন সে সুস্থ রয়েছে। এই মুহূর্তে পেডিয়াট্রিক আইসিইউ-তে রয়েছে বাচ্চাটি।

মুস্তাকিমের পরিবার জানায়, শনিবার পেরেক গিলে ফেলার পর থেকেই বমি ও শ্বাসকষ্ট হতে থাকে বাচ্চাটির। এরপর প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য তাকে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে তাকে মালদহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে এসএসকেএমে রেফার করা হয়েছিল।

এসএসকেএম কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, রিজিড ব্রঙ্কোস্কপি পদ্ধতিতে মুস্তাকিমের অস্ত্রোপচার শুরু হয়েছিল। নাক, কান, গলার চিকিৎসা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অরুণাভ সেনগুপ্তের তত্ত্বাবধানে ৪ সদস্যের চিকিৎসক দল এই অস্ত্রোপচার করে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*